মাছ ধরাকে কেন্দ্র করে সংঘর্ষে দুইভাই নিহত - adsangbad.com

সর্বশেষ


Monday, August 24, 2020

মাছ ধরাকে কেন্দ্র করে সংঘর্ষে দুইভাই নিহত


ফরিদপুর প্রতিনিধি:  ফরিদপুরের ভাঙ্গা উপজেলার নুরুল্লাগঞ্জ ইউনিয়নের হাওলি গঙ্গাধরদী গ্রামে মাছ ধরাকে কেন্দ্র করে রক্তক্ষয়ী সংঘর্ষে আপন দুই ভাইকে কুপিয়ে হত্যা করে প্রতিপক্ষরা। সোমবার সকালে এ ঘটনা ঘটে।
নিহতরা হলেন, গিয়াস মাতুব্বরের ছেলে শামীম মাতুব্বর(২৫) ও রাকিব মাতুব্বর(২০)।

থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা সফিকুর রহমান জানান, সংঘর্ষের খবর পেয়ে ভাঙ্গা থানা পুলিশ দ্রুত ঘটনাস্থলে পৌঁছে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে। এসময় পুলিশ হত্যার সাথে জড়িত থাকার সন্দেহে সাদ্দাক মাতুব্বর ও সালাম মাতুব্বরকে আটক করে। পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে রাখতে মোড়ে মোড়ে পুলিশ মোতায়েন রয়েছে। লাশ উদ্ধার করে মর্গে পাঠানো হয়েছে। এব্যাপারে ভাঙ্গা থানায় একটি হত্যা মামলার প্রস্তুতি চলছে।
নিহতের চাচা নুরুল্লাগঞ্জ ইউনিয়নের ৫নং ওয়ার্ড আওয়ামীলীগের সভাপতি বারি মাতুব্বর জানায়,রবিবার সন্ধ্যায় বাড়ীর পাশে বিলে মাছ ধরতে যায় রাকিব মাতুব্বর। সেসময় পাশের বাড়ীর সাদ্দাক মাতুব্বর ও তার ছেলে কামাল, সালাম, আবজাল ও জামাল মিলে রাকিবের জাল ফেলে দেয়। এনিয়ে রাতেই এলাকার মাতুব্বর মোতালেব মীমাংসার দায়িত্ব নেয়। সোমবার সকালে পর্যন্ত মোতালেব মাতুব্বর মীমাংসা না করায় সাদ্দাক মাতুব্বরের লোকজন দেশীয় অস্ত্র নিয়ে গিয়াস মাতুব্বরের বাড়ীতে হামলা চালায়। এসময় কিছু বুঝে ওঠার আগেই রাকিব মাতুব্বর ও তার বড় ভাই শামীম মাতুব্বরকে সাদ্দাক মাতুব্বরের ছেলেরা এলোপাথাড়ি কুপিয়ে চলে যায়। স্থানীয় লোকজন তাদের উদ্ধার করে ফরিদপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নেওয়ার পথেই দুই ভাই মারা যায়।

নিহতদের বাবা গিয়াস মাতুব্বর বলেন, মাছ ধরাকে কেন্দ্র করে ওরা আমার তরতাজা দুইটি ছেলেকে আমারই সামনে কুপিয়ে হত্যা করেছে। বর্তমান সরকারের মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর কাছে আমার দাবি, আমি যেন আমার দুই ছেলে হত্যার বিচার পাই।

Post Bottom Ad

Responsive Ads Here

Pages