করোনায় ১১০ খেলোয়ারের পাশে তামিম - adsangbad.com

সর্বশেষ

Tuesday, April 28, 2020

করোনায় ১১০ খেলোয়ারের পাশে তামিম


স্পোর্টস ডেস্ক : করোনার দুর্যোগে নিরলসভাবে কাজ করে যাচ্ছেন তামিম ইকবাল। দেশের যেখানে যার বিপদের খবর পান সেখানেই বাড়িয়ে দিচ্ছেন সাহায্যের হাত। কদিন আগে স্বেচ্ছাসেবী নাফিসা আনজুম খানের মাধ্যমে অসহায় মানুষদের দ্বারে দ্বারে খাবার পাঠিয়েছেন বাংলাদেশ অধিনায়ক। নারায়ণগঞ্জে থাকা ক্রিকেটার নাজমুল ইসলাম অপুর মাধ্যমেও সাহায্য করেছেন অসহায় দুস্থ মানুষদের।
তবে শুধু অসহায় মানুষই নন করোনার সময়ে অভাবে পড়া খেলোয়াড়দের পাশেও আছেন তামিম। সেই তালিকায় ক্রিকেটারদের পাশাপাশি আছেন ফুটবলার, সাঁতারু, হকি খেলোয়াড়সহ আরো অনেকে। আর এই মহৎ কাজে তামিমকে সাহায্য করছেন বিভিন্ন ক্রীড়াঙ্গনের সঙ্গে যুক্ত থাকা খেলোয়াড়রা। তাঁদেরই একজন জাতীয় ফুটবল দলের স্ট্রাইকার তৌহিদুল আলম সবুজ।
তৌহিদুল জানান, গতকাল সোমবার পর্যন্ত ৯১ জন খেলোয়াড় খেলোয়াড়ের পাশে দাঁড়িয়েছেন তামিম। যে সংখ্যাটা আজ মঙ্গলবার ১০০ ছাড়িয়েছে। সব মিলিয়ে এখন পর্যন্ত ১১০ জনের মতো খেলোয়াড়কে নগদ অর্থ পাঠিয়েছেন দেশের অন্যতম তারকা।
অবশ্য সাহায্যের বিষয়টি গোপন রেখেছেন বাংলাদেশ ওয়ানডে দলের অধিনায়ক। তৌহিদুল জানান, তাঁরা কয়েকজন মিলে শুধু তামিমকে আর্থিক সমস্যায় পড়া খেলোয়াড়দের নাম, ঠিকানা আর আর বিকাশ নম্বর পাঠাচ্ছেন। ঘরে বসে বিকাশের মাধ্যমে সবাইকে যথাসাধ্য নগদ অর্থ পাঠানোর চেষ্টা করছেন তামিম।
তৌহিদুলের কথায়, ‘বিভিন্ন গেমসের অনেকেই আর্থিকভাবে দুর্বল। অনেকেরই খেলার অর্থ দিয়ে সংসার চলে। কিন্তু করোনা সে পথ বন্ধ করে দিয়েছে। তাই তামিম ভাইয়া সেই খেলোয়াড়দের পাশে দাঁড়িয়েছেন। কারণ খেলোয়াড়রা তো আর সবার সামনে থেকে ত্রাণ নিতে পারছেন না। সে জন্য যতটা গোপন রেখে সাহায্য করা যায় তামিম ভাইয়া সেটা করছেন। কাল রাত পর্যন্ত ভাইয়া ৯১ জন খেলোয়াড়কে সাহায্য করেছেন তিনি। আজ সেটা ১০০ ছাড়িয়ে গেছে। কারণ উপহার তো আর নির্দিষ্ট থাকে না। কিন্তু এখন পর্যন্ত ১১০ জনের মতো খেলোয়াড়দের সাহায্য করেছেন। আমরা শুধু খেলোয়াড়দের নাম, ঠিকানা, বিকাশ নম্বর পাঠাচ্ছি।’
তামিমের উপহার পাওয়া নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক একজন ফুটবলার মুঠোফোনে নিজের আবেগ ধরে রাখতে পারেননি। বড় ভাইয়ের রোজগারে সংসার চালাতে হিমশিম খেতে হচ্ছে তাঁর পরিবারের। এ সময়ে তামিমের উপহার পেয়ে আবেগ-আপ্লুত হয়ে  তিনি বলেন, 'খুব কঠিন সময়ের মধ্যে দিয়ে যাচ্ছিলাম। ঘরে আমি-বাবা বেকার এখন বসে আছি। বড় ভাইয়ার একার রোজগার দিয়ে খুব কষ্টে চলছিল। এর মধ্যে তামিমের ভাই কাল টাকা পাঠিয়েছেন। আরো দেবেন বলে জানিয়েছেন। আমি আগে থেকেই তামিম ভাইয়ার বিরাট ভক্ত। এমন মহৎ উদ্যেগের জন্য ভাইয়াকে ধন্যবাদ।’

Post Bottom Ad

Responsive Ads Here

Pages