মানবতার ফেরীওয়ালা শেখ রিজাউল হক দিপু - adsangbad.com

সর্বশেষ

Saturday, April 11, 2020

মানবতার ফেরীওয়ালা শেখ রিজাউল হক দিপু


মাসুদ রানা : "মানুষ মানুষের জন্য জীবন জীবনের জন্য" ভূপেন হাজারিকার সেই জগৎ বিখ্যাত গানের সাথে মিল খোঁজার চেষ্টা করলে আজকের সমাজে মানবতা আর বিবেকহীন মানুষের সন্ধান মিলবে বেশী, কিন্তু তারই মাঝে কিছু সত্যিকারের মানুষের দেখা মিলবেই যাদের মানবিকতা মহানুভবতা দেখে তাকে "মানবতার ফেরিওয়ালা " না বলে পারা যায় না।
তেমনী এক মানবতার ফেরীওয়ালা  আশুলিয়া থানার ওসি শেখ রিজাউল হক দিপু।
 নিজের মেধা প্রজ্ঞা বিচক্ষণতা আর মানুষের সেবায় নিজেকে উজার করে প্রমাণ করলেন "পুলিশ জনগনের সেবক,পুলিশ জনগনের বন্ধু" থানা যে সকল সাধারণ মানুষেরর আস্থারস্থল  তিনি তা প্রতিষ্ঠা করতে সমর্থ হয়েছেন।
দেশে চলমান মহামারি করোনা ভাইরাসের সংক্রামন থেকে মানুষকে রক্ষা করতে পুলিশ যখন হিমসিম খাচ্ছে ঠিক সেই সময় আশুলিয়া থানার প্রধান ফটকের সামনে শুক্রবার (১০এপ্রিল) বিকেলে গরীব অসহায় গর্ভবতী পোশাক শ্রমিক লিপি (২৪) তার বাবার নাম দ্বিজেন্দ্রনাথ। টাকা না থাকায়  সন্তান প্রসবের চিন্তায় কান্নারত অবস্থা দেখে সাড়া দিলেন মানবতার ফেরিওয়ালা আশুলিয়া থানার অফিসার-ইন-চার্জ শেখ রিজাউল হক দিপু।
বিনা খরচে  সন্তান প্রসবের জন্য সিজারের সুব্যবস্থা করে দিলেন তিনি। মেয়েটি বর্তমানে বাইপাইলের হ্যাপি হাসপালে রয়েছে।

আর নিজের ব্যক্তিগত ফেসবুকে জানান দিলেন সেই মানবতাবাদের ইতিহাস।
আশুলিয়া বাসীর কাছে তিনি হয়ে রইলেন মানবতার ফেরিওয়ালা হয়ে।  দেশের এই কান্তিকালে তার এমন মহানুভবতা দেখে গর্বিত হলো আশুলিয়াবাসী।
আমার দেশের সংবাদ পরিবারের পক্ষ থেকে রইলো মানবতার ফেরিওয়ালা শেখ রিজাউল হক দিপু-র দীর্ঘায়ু ও সুস্বাস্থ্য কামনা।
আমাদের পাঠকের জন্য তার ফেসবুক স্ট্যাটাসটি হুবহু তুলে ধরা হলোঃ
আজ বিকাল পাঁচটার দিকে একটি মেয়ে এসে থানার গেটে কান্না করতে ছিল জিজ্ঞাসা করলাম কি সমস্যা বলল স্যার আজকে আমার সিজারের ডেট কিন্তু আমার কাছে টাকা নেই দেখে কোন ক্লিনিক বা কোন ডাক্তার আমাকে সিজার করছে না। আমি উক্ত মেয়েটিকে নিয়ে আমার পূর্ব পরিচিত ডাক্তার হ্যাপি ম্যাডামকে  ফোন করি।  এবং আমাদের গাড়িতে করে এসআই ওহিদ কে দিয়ে হ্যাপি জেনারেল হাসপাতালে পাঠাই । ডাক্তার হ্যাপি বিনা খরচে হ্যাপি জেনারেল হসপিটালে মেয়েটির সিজার করেন একটি কন্যা সন্তান জন্মলাভ করেছে। ওই রোগীর সকল ঔষধ এবং সিজারের সবকিছুই ব্যবস্থা করেছেন ডাক্তার হ্যাপি। ধন্যবাদ ডাক্তার হ্যাপি । আপনি অনেক বড় হন দোয়া করি। অফিসার ইনচার্জ আশুলিয়া থানা।

Post Bottom Ad

Responsive Ads Here

Pages