আশুলিয়া রিপোটার্স ক্লাবের উদ্যোগে আনন্দ ভ্রমন ও বনভোজন সম্পন্ন - adsangbad.com

সর্বশেষ

Friday, January 31, 2020

আশুলিয়া রিপোটার্স ক্লাবের উদ্যোগে আনন্দ ভ্রমন ও বনভোজন সম্পন্ন


ইব্রাহিম খলিল উল্লাহ : আশুলিয়া রিপোটার্স ক্লাবের উদ্যোগে সভাপতি মো. শাহ আলম ও সাধারন সম্পাদক কামাল হোসেন এর নেতৃত্বে ৪দিন ব্যাপী বার্ষিক আনন্দ ভ্রমন ও বনভোজন উদযাপন করা হয়েছে।
গত শনিবার( ২৫ জানুয়ারী) আশুলিয়ার নবীনগর অত্র সংগঠনের সহ-সভাপতি মাইনুল ইসলামের অভ্যার্থনায় শ্যামলী পরিবহনের একটি লাক্সারী কোচে সদস্যবৃন্দ কক্সবাজারের সমুদ্র সৈকত এর উদ্যেশে রওয়া হয়। পথে যাত্রা বিরতিতে  কুমিল্লার স্বনামধন্য নুরজাহান হোটেলে সদস্যদের নিয়ে  রাতের নৈশ ভোজনের আয়োজন করা হয়। সকালে কক্সবাজারের  স্বনামধন্যা হোটেল ধানসিড়িতে নাস্তা শেষে বিশ্বের বৃহত্তম সমুদ্র সৈকত কক্সবাজারের সুগন্ধা বিচে গিয়ে সকল সদস্যরা আনন্দ উল্লাসে মেতে উঠে এ সময় বিচের বালিতে অত্র সংগঠনের সদস্যদের মাঝে এক প্রীতি ফুটবল ম্যাচ অনুষ্ঠিত হয়। দুপুরে সদস্যদের অংশ গ্রহনে কক্সবাজারের এতিয্যবাহী স্বনামধন্যা হোটেল ঝাউবনে সদস্যদের চাহিদা অনুযায়ী দুপুরের খাবার পরিবেশন করা হয়।
বিকেলে সদস্যবৃন্দ যার যার মতো শপিং শেষে বিকেলে সমুদ্রের পাড়ে সূর্য অস্তকালিন দৃশ্য অবলোকন করে।
রাতে কক্সবাজারের স্বনামধন্য হোটেল ধানসিড়িতে সকল সদস্যদের রাতের খাবারের ব্যবস্থা করা হয়।
 পরের দিন সকালে সূর্য উদয়ের দৃশ্য আবলোকন শেষে সমুদ্রে স্নান ও ঘোরাফেরায় দিন কেটে যায় এদিন যথারিতি ঝাউবন ও ধানসিড়িতে খানাপিনা সম্পন্ন করা হয়। তৃতীয়দিন সকালে ধানসিড়িতে নাস্তা সেরে কক্সবাজার ছেড়ে ৫টি ইজিবাইক যোগে রাস্তার দু'ধারে নয়ানাভিরাম দৃশ্য অবলোকন করতে করতে বনভোজনের জন্য রামুর উদ্যেশে যাত্রা শুরু করে এ সময় পথে বেশ কয়েক জায়গায় যাত্রা বিরতি করে ঐতিয্যবাহী স্থান সমূহ পরিদর্শন করে সদস্যবৃন্দ এ সময় তারা দলবদ্ধ ভাবে আনন্দ উল্লাস করেন। এরপর ১৭০টি সিড়ি অতিক্রম করে হিমছড়ির পাহাড়ের ছুঁড়ায় উঠে , এসময় তারা চারদিকে অপরুপ প্রকৃতিক দৃশ্য দেখে অপলক চেয়ে থাকে কেউ মেতে রয় ছবি তোলায় এতদূর কষ্ট করে এসে এমন অপূর্ব মনোরম প্রকৃতি দেখে বেমালুম কষ্ট ভূলে যায়। সিড়ি থেকে নেমে যায় প্রকৃতিক ঝর্ণার স্রোতধারা অবলোকন করতে। পরে সকল সদস্যদের অংশ গ্রহনে দুপুর গড়িয়ে বিকেলে হয়ে যায়, সে সময় খাবারে কাটারীভোগ চালের ভাতের সাথে একটি বড় সাইজের চট্টগ্রামের এতিয্যবাহী রুপচাদাঁ মাছ,ডাল, সালাদ শুটকি ভর্তা পরিবেশন করা হয়। খাবারের পর ক্লান্ত শরিরে নিজেদের আবাসস্থল  হোটেল সী- আরাফাতে ফিরে আসেন।
 ২৮ জানুয়ারী ঢাকা ফেরার পথে সকল সদস্যকে  কুমিল্লার বিখ্যাত হোটেল মিয়ামীতে সকল সদস্যদের রুচি সম্মত খাবার পরিবেশন করা হয়।
৪ দিনের আনন্দ ভ্রমন আর বনভোজনে অংশ নিয়ে আশুলিয়া রিপোর্টাার্স ক্লাবের সদস্যরা তাদের উচ্ছাস প্রকাশ করে এবং প্রফুল্লচিত্তে সভাপতি শাহ আলম ও সাধারণ সম্পাদক কামাল হোসেন কে আন্তরিক ধন্যবাদ জ্ঞাপন করেন এবং প্রতি প্রতি বছর এই ধারা অব্যাহত রাখতে আহবান জানান।
উল্লেখ্য এই আয়োজনে সার্বিক সহযোগিতায় ছিলেন সহ- সভাপতি নুর হোসেন,যুগ্ন-সাধারণ সম্পাদক মাসুদ রানা, সাংগঠনিক সম্পাঃ শাকিল আহমেদ।
এ ছাড়াও সফরসঙ্গী ছিলেন, শফিকুল ইসলাম,নুরে- আলম জিকু, সিদিকুর রহমান,ইব্রাহিম খলিল, বাবুল খান,  মনির হোসেন,রিপন মিয়া, লিটন, নাসিম খাঁন,শাহাদাত হোসেন,রিপন মিয়া(২), এনামুল হক,মানিক,দেলোয়ার হোসেন, ইউসুফ আলি,ফারুক, সুজন সহ  সদস্যবৃন্দ।

Post Bottom Ad

Responsive Ads Here

Pages