জাতির বিবেক হিসেবে আপনাদের নিকট অনুরোধ আপনারা সত্যটাই তুলে ধরুন - adsangbad.com

সর্বশেষ

Sunday, October 6, 2019

জাতির বিবেক হিসেবে আপনাদের নিকট অনুরোধ আপনারা সত্যটাই তুলে ধরুন

সাভার প্রতিনিধি:
আশুলিয়া থানা যুবলীগের আহবায়ক কবির হোসেন সরকারের নামে বেশ কিছুদিন ধরেই নানা রকম সংবাদ। আর এই সংবাদদের পরিপ্রেক্ষিতে গত বেশ কিছু দিন অত্র এলাকায় বসবাসরত সাধারণ খেটে খাওয়া মানুষ থেকে রাজনৈতিক নেতাসহ প্রায় ডজন খানেক লোকের সাথে কথা হয় কবির সরকার কে নিয়ে।
এ প্রসঙ্গে অত্র এলাকায় বসবাসরত নানা জনের তথ্যের ভিত্তিতে জানাযায়, মোঃ কবির হোসেন সরকার আশুলিয়ার ইয়ারপুর ইউনিয়নের ঐতিহ্যবাহী সরকার পরিবারে জন্মগ্রহণ করেন। তার দাদা মরহুম সবেদ আলি সরকার তৎকালীন সাভার থানা আওয়ামী লীগের  প্রতিষ্ঠাতা সভাপতি ছিলেন।তার পিতা মরহুম গিয়াসউদ্দিন সরকার জাতির জনক বঙ্গবন্ধুর শেখ মুজিবর রহমানের ঘনিষ্ঠ সহচর ছিলেন। আর তারই ধারাবাহিকতায় কবির হোসেন সরকার আওয়ামী পরিবারের সন্তান হয়ে সে তার পারিবারিক ঐতিহ্য এখন ও আগলে রেখেছেন। নিজের পৈত্রিক সম্পদ বিক্রি করে রাজনীতির পেছনে আকাতরে অর্থ ঢেলেছেন বিনিময়ে অর্জন করেছেন লাখো মানুষের ভালবাসা।
 বঙ্গবন্ধুর আদর্শের সৈনিক হয়ে প্রধানমন্ত্রীর দেখানো এগিয়ে চলেছেন  যুবলীগের এই নেতা।
বিগত দিনে দলের আন্দোলন সংগ্রামে ছিলেন সবার আগে।
পরিশ্রম করে হালাল ব্যবসা ও একনিষ্ঠ রাজনীতির মাধ্যমে নিজেকে তিল তিল করে গড়ে তুলেছেন তিনি।
 ইতিমধ্যে এই তরুণ রাজনৈতিক নেতা দলীয় নেতাকর্মী ও সমাজের অসহায় দারিদ্র মানুষের সাহায্য সহযোগীতা করে জনসাধারণের প্রশংসা কুড়িয়েছেন। অবদান রেখেছেন বহু অসহায় হতদরিদ্র মানুষের ভাগ্য উন্নয়নে।
এ ছাড়াও সদ্য সমাপ্ত জাতীয় সংসদ নির্বাচনে ঢাকা-১৯ আসনে আওয়ামী লীগ মনোনীত প্রার্থী দেশ বরেণ্য চিকিৎসক ডাঃএনামুর রহমানের বিশাল বিজয়ে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখেন। নির্বাচনে খরচ করেন ব্যক্তিগত অর্থ।
এ কারণে ডাঃ এনামুর রহমানসহ দলীয় নেতাকর্মী ও এলাকাবাসীর কাছে দিন দিন আস্থার প্রতীক হয়ে উঠেছেন এই নেতা।
এ প্রসঙ্গে এই প্রতিবেদক কে আশুলিয়া থানা যুবরীগের আহবায়ক কবির হোসেন সরকার বলেন,
 সাংবাদিক ভাইদের উদ্দেশ্য আমি বলতে চাই আপনারা ভালভাবে খোঁজ খবর নিয়ে আমার বিরুদ্ধে নিউজ করেন সমস্যা নাই কিন্তু কারো প্ররোচনায় আমার বিরুদ্ধে অপপ্রচার চালাবেন না প্লিজ।
আপনাদের জ্ঞাতার্থে জানাতে চাই আমি পৈত্রিক সূত্রে যে সম্পদ পেয়েছি তা আমার পরবর্তী চৌদ্দ পুরুষ পায়ের উপর পা রেখে খেলেও শেষ হবেনা।
সাংবাদিক ভাইয়েরা আপনারা জেনে নিন। আমি যুবলীগের আহবায়ক হবার পর কোথায় কবে কোন দুনীর্তির সাথে জড়িত হয়েছি? কোথায় কোন সন্ত্রাসী কর্মকান্ড করেছি প্রমাণ করুন? এক শতক জমি কিনেছি কিনা
আর কিছু সাংবাদিক ভাইয়েরা লিখেছে
আমার গাড়ির, বাড়ির কথা তাদের জানাতে চাই
আমি একটি ধর্ণাঢ্য পরিবারের সন্তান আমি ইচ্ছে করলে প্রাডু গাড়ি চালাতেই পারি তার পরেও উত্তরার লংকা বাংলা ব্যাংক থেকে ঋণ নিয়ে আমি গাড়িটি কিনেছি, আর বাড়ি করতে বেশকিছু পরিমান জমি বিক্রয় করতে হয়েছে । কিন্তু প্রশ্ন হলো আজকে যারা আ.লীগের রাজনীতি করে আঙ্গুল ফুলে কলাগাছ হয়েছে তাদের বিরুদ্ধে আপনার কলম কে ব্যবহার করুন  যাদের এক সময় নুত আনতে পান্তা ফুরোতো তারা এই রাজনীতির নাম করে কিভাবে শত শত কোটি টাকার মালিক হলো।
আমি স্পস্ট ভাবে জানিয়ে দিতে চাই মহান আল্লাহতালার রহমতে আর পূর্ব পুরুষের রেখে যাওয়া সম্পদের বদৌলতে আমার বাড়ী গাড়ী ব্যবসা সবই আছে আমি রাজনীতি করি শুধু মানুষকে সেবা করার লক্ষে। অর্থ কামানোর হাতিয়ার হিসেবে আমি রাজনীতি কে আগেও ব্যবহার করিনি আগামীতেও করবো না। বঙ্গবন্ধুর আদর্শে পথ চলি তার স্বপ্নকে বাস্তবায়নে আমার নেত্রী শেখ হাসিনার আধুনিক বাংলাদেশ নির্মানে কাজ করছি। যত বাধাই আসুক আমি আমার আদর্শ থেকে বিচ্যুত হব না।
 জাতির বিবেক হিসেবে আপনাদের নিকট অনুরোধ আপনারা সত্যটাই তুলে ধরুন

Post Bottom Ad

Responsive Ads Here

Pages